মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:৫৭ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞাপন:
>>> পায়রা মিডিয়া এন্ড কমিনিউকেশন (প্রা:) লিমিটেডে আপনাকে স্বাগতম ** আপনার পন্য এবং প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন: +৮৮ ০১৭১২২৭৬২৫৮ ** বার্তা সংক্রান্ত: ০১৭২১০০৯০১৭ ** নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি: দৈনিক মানবকালে কিছু সংখ্যক স্টাফ রিপোর্টার, রিপোর্টার এবং নিউজ রুম এডিটর নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা অফিসে যোগাযোগ করুন **

বিয়ে বাড়িতে চলছে কান্নার রোল

  • আপডেট টাইম রবিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ৩.২৭ অপরাহ্ণ
  • ২১ বার পড়া হয়েছে

শুভ ঘোষ,মুন্সীগঞ্জ থেকে : বাঙালী বিয়ের নিয়ম অনুযায়ী বিয়ের পরে নতুন বউকে নিয়ে আসা হয় বরের বাড়িতে । এরপর বরের আত্মীয় স্বজন পাড়া-পড়শি মিলে চলে বউ বরণ। বিয়ের পরদিন হয় বৌভাত। সেখানে বর-কনের দুই বাড়ির লোকজন সহ আত্মীয় স্বজন আর পাড়া-প্রতিবেশির আনন্দ উল্লাস। মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার কনকসারে বট তলার রুবেল বেপারীর বিয়েতে এমনইটিই হওয়ার কথা ছিলো। তবে সব আয়োজন পাল্টে গেছে একটি সড়ক দূর্ঘটনায়। নতুন বউ ঘরে আনতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলো একেকে দশটি প্রাণ। যে বাড়িতে উল্লাসে বউ বরণে কথা ছিলো সেখানে এখন কান্নার রোল। বিয়ের অনুষ্ঠান শেষ হয়েছে মৃত্যুযাত্রায় ।

মাইক্রোবাসে করে যাচ্ছিলেন বিয়ের আনন্দে মেতে উঠতে কিন্তু সে আনন্দ পরিণত হলো বিষাদের কান্নায়, বাসের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই প্রাণ গেছে ৬ জন হতভাগ্যের এর মধ্যে ছিল একই পরিবারের ৫ জন সদস্য, শুক্রবার দুপুরে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরের ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে ঘটে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। শ্রীনগর উপজেলার ষোলঘর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে রবেলের বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসের সঙ্গে যাত্রীবাহী বাসের সংঘর্ষে এপর্যন্ত ১০জন নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে একই পরিবারের ৫জন সহ ১০ জনই মাইক্রোবাসের যাত্রী। সর্বশেষ শনিবার ভোর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যায় বরের খালাতে ভাই জাহাঙ্গীর।এই কান্না পিতা হারা এক সন্তানের, গতকাল ও যেখানে ভেজে ছিল সানাইয়ের শুর, আজ সেখানে বাসাতে কম্পিত হচ্ছে, স্বজন হারানোর বেদনা, এক মূহুর্তে বদলে গেলো বিয়ের আনন্দে মেতে থাকা পরিবারের দৃশ্যপট। লৌহজং উপজেলার কনকসার বটতলা গ্রামের বর রুবেলের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।

স্বজনদের কে হারিয়ে যেন বাকরুদ্ধ গোটা পরিবার, কথা ছিল এক সঙ্গে বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার তাই নতুন জামায় সেঁজে ঢাকার পথে রওনা হয়েছিল পরিবারের সদস্যরা। কিন্তু কখনো-ই কারো ধারনায় ছিলনা অনাগত এই দুঃসময়ের।
এদিকে স্বজনরা হাসপাতাল থেকে মরদেহ আনার পর থেকেই প্রতিবেশীরা ভিড় করছেন শোকস্তব্ধ পরিবারের বাড়িতে। বাড়ির সামনে স্বজনদের কান্নায় ভারী হয়ে গিয়েছে বাতাস। এ যেনো স্বান্তনা দেওয়ার ভাষা নেই প্রতিবেশীদের।

নিহতদের মধ্যে বর রুবেলের বাবা আঃ রশিদ বেপারী (৭০), বোন লিজা (২৪) ভাগনী তাবাসসুম(৬) ও ভাবি রুনা (২৫) ও ভাতিজা তাহসান(৫) একই পরিবারের সদস্য। বাকি ৫জনের মধ্যে হলেন, বরের খালাতো ভাই জাহাঙ্গীর (৪২), ভাবির ছোট বোন রেনু(১২),  মাইক্রোবাস চালক বিল্লাল (২৮), যাত্রী কেরামত বেপারী (৭১), মফিজুল মোল্লা (৬০) ও জাহাঙ্গীর। এঘটনায় অপর আহত ১০ জনকে শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। নিহতদের মধ্যে ৮জনের বাড়ি লৌহজংয়ের কনকসার। গাড়ি চালকের বাড়ি শ্রীনগর উপজে তবে এঘটনায় বর পিছনের গাড়িতে থাকায় তিনি অক্ষত থেকে। এদের মধ্যে ৮জনের বাড়ি লৌহজংয়ের কনকসার ও বরের খালাতে ভাই জাহাঙ্গীরের ও  গাড়ি চালকের বাড়ি শ্রীনগর উপজেলায়।

প্রত্যক্ষদর্শীদের থেকে জানা যায়, বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসটি(ঢাকা মেট্রো চ ১৫-৫৫৬৬) মুন্সীগঞ্জ থেকে  ঢাকার কামরাঙ্গী চরে  যাচ্চিল আর স্বাধীন পরিবহনের(ঢাকা মেট্রো ব ১৪-৮১৯৫) যাত্রীবাহী বাসটি যাচ্ছিল মাওয়ার দিকে। পথে ষোলঘর বাসস্ট্যান্ড এলাকা তাদেরমুখমুখি সংর্ঘষ হয়। এতে ১২জন যাত্রী ছিলো। সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই ছয়জনের মৃত্যু হয়। এদিকে আহতদের মধ্যে শ্রীনগর স্বাস্ব্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নেওয়া হলে পথে মারা যান দুজন। অপরদিকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চারজনকে ঢাকা মেডিকেলে  নেওয়া হলে মারা যায় ১জন।

শ্রীনগর ফায়ারসার্ভিস ষ্টেশন স‚ত্রে জানাগেছে, ঘটনার পরপরই স্থানীয় লোকজন, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা মাইক্রোবাসের ভেতরে আটকে পড়া নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে।

তদন্ত কমিটি গঠন
একইদিন বিকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। জেলা প্রশাসক নিহত প্রত্যেকের ক্ষতিপূরনে ২০হাজার টাকা করেন।
এঘটনায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আসমা শাহীনকে প্রধান করে  উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ট্রাফিক ইন্সপেক্টর(হাইওয়ে), স্থানীয় চেয়ারম, শ্রীনগর সার্কেল এসপি , বিআরটিএর প্রতিনিধি সহ ৫সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটিকে আগামী দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

স্বজন হাড়িয়ে বাক শূণ্য বর রুবেল:
নতুন বউকে ঘরে তোলার আয়োজন বদলে গেছে স্বজনদের মৃত্যুতে। চাঁপাকান্নায় চোখ দিয়ে অজড়ে জরছে জল। চোখে মুখে আর্ত্মনাদ। স্বজন হাড়িয়ে বাক শূণ্য হয়ে পরেছে বর রুবেল বেপারী। কারো সাথেই কথা বলতে পারছেনা সে।

৯জনের জানাজা শেষে দাফন :
শুক্রবার রাতেই শ্রীনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ৮জনের ও ঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল থেকে ১জনের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। নিহতদের লাশ বাড়িতে পৌছালে সেখানে কান্নার রুল পেরে যায়। সৃষ্টি হয় এক হৃদয় বিধারক পরিবেশের। শনিবার সকালে লৌহজং উপজেরার ব্রাক্ষ¥গাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে কনকসার এলাকার নিহত ৮জনের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১০টায় জানাজায় অংশনেয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বিভিন্ন শ্রেনি পেশার সহ¯্রাধিক জনসাধারণ। পরে নিহত ৮জনকে সাতগড়িয়া কবরস্থানেও দাফন করা হয়। অপরদিকে গাড়ি চালক বিল্লালে জানাজা হয় শ্রীনগর উপজেলার বেজগাঁও কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্লাঙ্গনে। স্থানীয় কবরস্থানে তাকে দাফন সম্পূর্ণ হয়।

দায়ী বেপরোয়া গতি বলেছেন পুলিশ সুপার :
সড়ক দূর্ঘটনায় ঘটনায় দায়ী হিসাবে দুর্ঘটনা কবলিত দুই গাড়িরই বেপরোয়া গতি ছিলো বলে মনে করছেন মুন্সীগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম। তিনি বলেন- এক্সপ্রেস হাইওয়ের নির্মান কাজ চলমান থাকায় ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের একটি পাশ সম্পূর্ন বন্ধ থাকার কারনে এক লেনে গাড়ি যাওয়া আসা করছিলো। এসময় দুটি গাড়িই প্রচন্ড গতিতে ছিলো বলে মনে করছি। কারণ মাইক্রোবাসটি একবারেই ধুমড়ে মুচড়ে গিয়েছে। বাসটির সামনের অংশ ক্ষতি হয়েছে।

Sharing

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazaranobkal5425
© All rights reserved © Payra Media & Communication (Pvt) Ltd
Theme Download From ThemesBazar.Com
shares