মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:২৭ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞাপন:
>>> পায়রা মিডিয়া এন্ড কমিনিউকেশন (প্রা:) লিমিটেডে আপনাকে স্বাগতম ** আপনার পন্য এবং প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন: +৮৮ ০১৭১২২৭৬২৫৮ ** বার্তা সংক্রান্ত: ০১৭২১০০৯০১৭ ** নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি: দৈনিক মানবকালে কিছু সংখ্যক স্টাফ রিপোর্টার, রিপোর্টার এবং নিউজ রুম এডিটর নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা অফিসে যোগাযোগ করুন **

ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত হলেন বিশ্বনাথের মকবুল আলী

  • আপডেট টাইম রবিবার, ৩ নভেম্বর, ২০১৯, ১২.৫০ অপরাহ্ণ
  • ৩৮ বার পড়া হয়েছে

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের প্রভাকরপর গ্রামের আনোয়ার চৌধুরীর পর এবার ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিযুক্ত হলেন সিলেটের বিশ্বনাথের মকলবুল আলী।

গত ৩০ অক্টোবর তাকে যুক্তরাজ্যের ‘ডোমিনিক্যান রিপাবলিক অ্যান্ড নন-র‌্যাসিডেন্ট অ্যামবেস্যাডর টু-দ্য রিপাবলিক অব হাইতি’র ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়।

যুক্তরাজ্যের ব্রাডফোড শহরের বাসিন্দা সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলা সদরের পার্শ্ববর্তী পশ্চিম চাঁন্দশীরকাপন গ্রামের মদরিছ আলী ও কামরুননেছা দম্পতির একমাত্র ছেলে মকবুল। পাঁচ বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে মকবুল আলী সর্বকনিষ্ট।

যুক্তরাজ্যের টাওয়ার হেমলেটের স্পিকার ও সিভিক মেয়র বিশ্বাথের ধরারাই গ্রামের বাসিন্দা আয়াছ মিয়া বিষয়টি নিশ্চত করেছেন। মকবুল আলীকে অভিনন্দন জানিয়ে তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, গত ৩০ অক্টোবর থেকে মকবুল আলীকে ‘ডোমিনিক্যান রিপাবলিক অ্যান্ড নন-র‌্যাসিডেন্ট অ্যামবেস্যাডর টু-দ্য রিপাবলিক অব হাইতি’র ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, চলতি বছরের ২৯ আগস্ট সে দেশের সরকারি ওয়েবসাইটে মকবুল আলীর ছবিসহ তাকে রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিযুক্ত করার বিষয়টি আপডেট করা হয়েছে। আগামী ১ জানুয়ারি থেকে তিনি রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালন করবেন বলেও জানান স্পিকার আয়াছ মিয়া।

এদিকে মকবুল আলী ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত হওয়ার খবরে তার গ্রামের বাড়ি চাঁন্দশীরকাপন গ্রামে চলছে আনন্দ-উৎসব। বাড়িতে পরিবারের কেউ না থাকলেও চাচাতো ভাই ও ভাতিজারা গ্রামে মিষ্টি বিতরণ করেছেন।

বাড়িতে থাকা মকবুল আলীর ভাতিজা লুৎফুর রহমান জুয়েলের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, তার চাচা চল্লিশোর্ধ্ব মকবুল আলীর জন্ম যুক্তরাজ্যের ব্রাডফোর্ড শহরে। এ পর্যন্ত দুবার দেশে এসেছেন তিনি। সর্বশেষ ২০১৬ সালের প্রথম দিকে দ্বিতীয়বার দেশে এসে দুই সপ্তাহ বাড়িতে অবস্থান করেছিলেন। এ সময় তিনি আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িতে গিয়ে দেখা করেছিলেন।

জুয়েল জানান, বিট্রিশ রাষ্ট্রদূত হওয়ার আগে তার চাচা মকবুল আলী মধ্যপ্রাচ্যের বাহরাইনে ডেপুটি ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূতের দায়িত্বে ছিলেন। এর আগে মিশরের কায়রোতে ব্রিটিশ দূতাবাসেও নিযুক্ত ছিলেন তিনি। লিবিয়াতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী স্পেশাল এনভয় গ্রুপের চিফ অব স্টাফ হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন মকবুল আলী।

যুক্তরাজ্যের সরকারি সেবায় বিশেষ অবদানের জন্য ২০১০ সালে মকবুল আলী ‘অর্ডার অব দ্য ব্রিটিশ অ্যাম্পায়ার ‘ওবিই’ খেতাবে ভূষিত হয়েছিলেন। সে সময় যুক্তরাজ্যের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ তাকে ‘ওবিই’ খেতাবে ভূষিত করেন বলে জানান জুয়েল।

Sharing

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazaranobkal5425
© All rights reserved © Payra Media & Communication (Pvt) Ltd
Theme Download From ThemesBazar.Com
shares