মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:৪৯ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞাপন:
>>> পায়রা মিডিয়া এন্ড কমিনিউকেশন (প্রা:) লিমিটেডে আপনাকে স্বাগতম ** আপনার পন্য এবং প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন: +৮৮ ০১৭১২২৭৬২৫৮ ** বার্তা সংক্রান্ত: ০১৭২১০০৯০১৭ ** নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি: দৈনিক মানবকালে কিছু সংখ্যক স্টাফ রিপোর্টার, রিপোর্টার এবং নিউজ রুম এডিটর নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা অফিসে যোগাযোগ করুন **

শিক্ষার্থীদের দুর্নীতি বিরোধী শপথ বাক্য পাঠ

  • আপডেট টাইম বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯, ৭.২৫ অপরাহ্ণ
  • ৩২ বার পড়া হয়েছে

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি :

ময়মনসিংহ সদর উপজেলার অন্তর্গত চর হরিপুর গ্রামের তিন রাস্তার মোড়ে অবস্থিত চর হরিপুর আদর্শ স্কুল এন্ড কলেজ-এ গত রোববার শতাধিক শিক্ষার্থীদের দুর্নীতি বিরোধী সচেতনতা তৈরিতে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের আগ্রহে টিআইবি’র অনুপ্রেরণায় গঠিত সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) ময়মনসিংহ এর ইয়েস সদস্য মোঃ ইয়াসিন আলীর উদ্যোগে তথ্য প্রাপ্তির আবেদন ফরম পূরণ ও হাতে কলমে প্রশিক্ষণ প্রদান এবং দুর্নীতি বিরোধী শপথ বাক্য পাঠ করানো হয়। শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে কার্যক্রমটি সফলভাবে বাস্তবায়িত হয়েছে।

প্রশিক্ষণ শেষে শিক্ষার্থীদের শপথ বাক্য পাঠ করান  প্রধান শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক (সোহাগ)। এই সময় উপস্থিত ছিলেন , প্রধান শিক্ষক শাহীন মিয়া, সহকারী শিক্ষক আব্দুস সানি, ফুয়াদ হাসান সাকিব, মোঃ নূরুল ইসলাম, নুসরাত জাহান স্মৃতি, আম্বিয়া খাতুন, মুন্নী রহমান, আজহারুল ইসলাম সহ আরো অনেকেই। 

বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সার্বিক সহযোগিতা এবং আন্তরিকতায় প্রশিক্ষণ প্রদান করেন-এডভোকেসি এন্ড লিগ্যাল এডভাইস সেন্টার-এর ফ্যাসিলিটেটর নিয়ামুল বারী, ইয়েস সদস্য ইয়াসিন ও জিহাদ। সোহাগ এবং শাহীনের নিরলস প্রচেষ্টা এবং অক্লান্ত পরিশ্রমে ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠিত এই বিদ্যালয়ে গ্রামের শিশুদের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি দেশপ্রেম এবং মানবিক শিক্ষায় সুশিক্ষিত করে চলেছে। বর্তমানে সাড়ে পাঁচ শতাধিক শিক্ষার্থীর জ্ঞান আহরণের কেন্দ্রস্থল এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

শিক্ষক শাহীন বলেন,  শিক্ষার্থীরা পড়ালেখার পাশাপাশি দেশপ্রেমী এবং দুর্নীতি বিরোধী হোক সর্বপোরি আদর্শ মানুষ গড়ে উঠুক। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ময়মনসিংহ সনাক ও টিআইবি’র প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে। কেননা গ্রামের অনেক মানুষ এখনও অনেক অসচেতন এবং “তথ্য অধিকার আইন ২০০৯” সম্পর্কে গ্রামের বেশির ভাগ মানুষই অজ্ঞ।

ইয়েস সদস্য ইয়াসিন বলেন, আমি বিভিন্ন দপ্তরে তথ্য প্রাপ্তির জন্য আবেদন করে উপলব্ধি করেছি, “তথ্য অধিকার আইন ২০০৯” সম্পর্কে অনেক দপ্তর এখনও তেমন কোনো ধারণা রাখে না। তাই যদি মানুষ প্রয়োজনীয় তথ্য চেয়ে আবেদন করার ব্যাপারে না জানে তাহলে গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা সম্ভব নয়। তাই আমি আমার নিজের এলাকায় ব্যক্তিগতভাবে এই বিদ্যালয়ের পরিচালক মহোদয়’র সাথে কথা বলে দিনক্ষণ ঠিক করে কাজটি করি। আমারা পরবর্তীতে আরো  বড় আয়োজন কনবো। এই কাজটিকে এতো ফলপ্রসূ করেছেন আমাদের এলাকার ফ্যাসিলেটেটর নিয়ামূল বারী। আমি মনে করি সকল সনাকের ইয়েস সদস্যগণ যদি এরকম কার্যক্রম প্রত্যন্ত অঞ্চলে বাস্তবায়ন করে তাহলে টিআইবির লক্ষ্য পূরণ করা অনেকাংশে সহজ হয়ে যাবে।

কেননা বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষ গ্রামে বাস করে এবং তাঁরা অসচেতন। গ্রামীণ মানুষকে সচেতন করতে পারলে আমাদের রক্তে কেনা স্বদেশ দুর্নীতির বিষাক্ত ছোবল থেকে মুক্তি পাবে।

Sharing

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazaranobkal5425
© All rights reserved © Payra Media & Communication (Pvt) Ltd
Theme Download From ThemesBazar.Com
shares