২৪শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ।। ৮ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রিপোর্টারের নাম :
  • আপডেট টাইম : ২৫ ডিসেম্বর- ২০১৯, ২:০৩ অপরাহ্ণ
  • 317 বার পড়া হয়েছে

আসন্ন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অত্যন্ত সিরিয়াসলি দেখতে চান বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা।

আজ বুধবার সকাল ১০টায় ইটিআই ভবনে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের রিটার্নিং ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের ব্রিফিংকালে তিনি এসব কথা বলেন।

 

সিইসি বলেন, রাজধানীতে ভোটের দিকে সবার নজর থাকে। কূটনৈতিক মহলের দৃষ্টি থাকে। তাই নির্বাচন পরিচালনা ও দায়িত্ব পালনে সাহসী ভূমিকা রাখতে হবে। আমি বিশ্বাস ও আস্থার সঙ্গে বলতে চাই– আপনারা দায়িত্ব পালন করতে পারবেন। নির্বাচনী দায়িত্ব পালনের সময় দলমত ও আদর্শের প্রতি দুর্বলতা থাকতে পারে না। আমরা নির্বাচনটা অত্যন্ত সিরিয়াসলি দেখতে চাই।

 

নির্বাচনী কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক, প্রতিযোগিতামূলক ও অংশগ্রহণমূলক হবে। মনে রাখতে হবে– প্রত্যেক প্রার্থী কার কী ধর্ম, কার কী বর্ণ, কার কী রঙ এবং রাজনৈতিক ব্যাকগ্রাউন্ড, সেটি নির্বাচনে যারা দায়িত্বে থাকবেন তাদের দেখার বিষয় নয়। প্রত্যেকের সঙ্গে সমান আচরণ করতে হবে। প্রত্যেকের কথা ধৈর্য ধরে শুনতে হবে।

 

নির্বাচনী কর্মকর্তাদের যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, নীতিনির্ধারণী এলাকা ছাড়া সব দায়িত্ব আপনাদের ওপর অর্পিত রয়েছে। সেখানে ছন্দ, গদ্য ও পদ্যের দরকার নেই। বাস্তব প্রেক্ষাপটে কী আছে, সেটি দেখতে হবে। অনেকে অনেক লালিত-পালিত কথা বলবে, কিন্তু আপনারা মাঠে থাকবেন, যা দেখবেন সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন।

 

ইলেকট্রনিক ভোটিং সিস্টেম সম্পর্কে তিনি বলেন, অনেক প্রতিকূলতার মধ্যে ইভিএমে টিকে আছি উল্লেখ করে নির্বাচনী কর্মকর্তাদের তিনি বলেন, আপনারা অনেকে ইভিএমে নির্বাচন করেছেন। ইভিএম নির্বাচন পরিচালনায় কোনো অসুবিধা দেখিনি। এর মাধ্যমে ভোটাধিকার প্রয়োগ সফলভাবে বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়। ইভিএম যারা মাঠে-ময়দানে দেখে প্রয়োগ করবেন, তাদের কাছে সন্দেহ থাকলে আমাদের বলবেন। যদি সবাই বলেন, এটি দিয়ে ভালোভাবে নির্বাচন পরিচালনা করা যায় না, তা হলে করব না।

 

এ সময় নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, রফিকুল ইসলাম, নির্বাচন কমিশনার অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদত হোসেন চৌধুরী, নির্বাচন কমিশনার বেগম কবিতা খানম, ইসির সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

Sharing

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
shares